দিন বদলায়, বদলে যায় মানুষের রুচি, অভ্যাস এবং জীবন যাত্রার ধরন। যা হয়তো একসময় ছিল খুব স্বাভাবিক ব্যাপার, তা আজকে আমাদের শুনলে বড় অদ্ভুত মনে হয়। চলুন আজকে আমরা জেনে নেই প্রাচীনকালের এমনকিছু অদ্ভুত ব্যাপার স্যাপার।

 

  • প্রাচীনকালে রোমে মুখ ধোঁয়ার জন্য ইউরিন বা মূত্র ব্যবহৃত হত। ইউরিনে মূলত প্রচুর পরিমাণে অ্যামোনিয়া থাকে যা একটি প্রাকৃতিক জীবানুনাশক হিসেবে কাজ করে।

 

  • মিশর, পিরাপিডের জন্য বিখ্যাত হলেও মিশরের চেয়ে বেশি পরিমাণ পিরামিডের অবস্থান সুদানে। যদিও সে পিরামিডগুলো আকারে মিশরের পিরামিডগুলোর মত অতটা বড় নয়।

  • ১৯৬৫ সালে চীনের হুবেই নগরীতে একটি পরিত্যাক্ত কবরস্থানে একটি প্রাচীন তরবারীর পাওয়া যায়। পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যায় তরবারীটি প্রায় দুই হাজার বছরের পুরনো। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে  এতবছর মাটির নিচে চাপা পড়ে থাকা সত্বেও প্রায় অক্ষত অবস্থাতেই রয়ে গেছে এটি।

 

  • সকালে ঘুম থেকে উঠে আমাদের সবার আগে যে জিনিসটির প্রয়োজন হয়, সেটা হচ্ছে টুথপেস্ট। কিন্তু জানেন কি এই টুথপেস্ট প্রথম কোথায় আবিষ্কৃত হয়?
    ধারনা করা হয়ে থাকে প্রাচীন মিশরেই প্রথম এর প্রচলন ঘটে।

 

  • বলুনতো কারা প্রথম মমি  তৈরির উপায় বের করে? কি ভাবছেন, মিশর? না। প্রাচীন দক্ষিন আমেরিকায় প্রথম মমি তৈরির উপায় বের হয়। অবশ্য মিশরীয়রা মানব দেহ সংরক্ষনের ব্যাপারে যে সবচেয়ে বেশি সফলতা পেয়েছিল।

  • প্রাচীন মায়ানরা তাদের বাচ্চাদের মাথায় কাঠের তক্তা দিয়ে ধীরে ধীরে চাপ প্রয়োগ করত। তারা এটা করত যাতে করে তাদের বাচ্চাদের মাথা কিছুটা চ্যাপ্টা হয়ে গিয়ে ভুট্টা দানার মত দেখায়। কারণ ভুট্টার প্রতি তাদের অদ্ভুত একটা টান ছিল, এমনকি তারা বিশ্বাস করত মানুষ ভুট্টা দানা থেকেই তৈরি।

 

  • চকলেট তো আমাদের সবারই প্রিয়। এই চকলেটও কিন্তু মায়ানরাই প্রথম আবিষ্কার করে। খ্রিষ্টপূর্ব প্রায় ৬০০ বছর আগে তারা চকলেটের প্রচলন ঘটায়।

 

  • কোন জিনিস বেশি টেকেনা বলে চায়নিজদের বর্তমানে বেশ ভালোই একটা দুর্নাম আছে । কিন্তু প্রাচীন কালে বোধহয় চায়নীজদের মধ্যে এই ব্যাপারটি ছিলনা। কারণ, প্রায় খ্রিষ্টপূর্ব ২০০ সালে নির্মিত একটি গুহার সন্ধান পাওয়া গিয়েছে সেখানে। যেটি এখনও টিকে আছে বেশ বহাল তবিয়তেই।

 

  • মানুষ মারা যাবার পর বিভিন্ন কালে, স্থানে,ধর্মে বিভিন্নভাবে শেষকৃত্য সম্পন্ন করার বিধি বিধান পাওয়া যায়। কিন্তু  প্রাচীনকালে যেসব অদ্ভুত নিয়মে মানবদেহ দাফনের পদ্ধতি জানা যায় তার মধ্যে সবচেয়ে অদ্ভুত নিয়মটির প্রচলন ছিল প্রাচীন জাপানে। সেখানে মরদেহের আকার অনুযায়ী বিভিন্ন আকারের সরু মুখো মাটির পাত্র তৈরি করে সেটার মধ্যে মানব দেহকে পুরে কবর দেয়া হত।

 

  • পৃথীবির সবচেয়ে পুরনো উপাসনালয়টি তুর্কিতে অবস্থিত। প্রায় ধ্বংস হয়ে যাওয়া উপসনালয়টি প্রায় ১১,৫০০ বছর আগের তৈরি বলে ধারনা করা হয়ে থাকে।

 

মতামত জানান