নির্ঘুম রাত, নির্বাক চাঁদ আর সেই কালো দুটি চোখ,
চোখ বলে তারে করেছি যে ভুল পাবনার রাজভোগ।
হয়ে সে স্বপন জ্বালে আমরণ ছাড়া পাইবার নাহি পথ,
হোক না সে মোর কাটুক বিভোর এতেও করে দ্বিমত।
কি করিব হায়, পথ জানা নাই মন যায় পাওয়া কিসে?
অযথা কেনো মারিছো নিজেরে অপরাধী ভালোবেসে?
বুকে ব্যথা লয়ে মুখে আমি হাসি বাধেনা যে হৃদ রোধ,
সব ভুলে যাই স্বপনেতে দেখে ঐ হাসিমাখা চোখ,
চোখ বলে তারে করেছি যে ভুল পাবনার রাজভোগ।

দেখাতে প্রথম করেছে হরণ, যাহা কিছু ছিলো মনো আবরণ,
দ্বিতীয় দেখায় প্রাণ গেলো হায়, ঘটিলো সহসা জীবনানশন।
জলে ডুবে গেছি, প্রেমে পরে গেছি ফেলনাতো জল চোখে,
পর্বত সম হইয়া যে সে আঘাথানে নর বুকে।
ছলছল নাহি খলখল হাসো, যাহা কিছু চাও লয়ে ভালোবাসো,
দেবনাকো বাধা চাহিবোনা আধা, পুরো তরী লয়ে সদাপটে ভাসো।
যদি সন্ধ্যায় কুল নাহি পায় দিনরাত ভয়ে ঢোঁক,
হাত জোড় করে দোয়া মাঙী আমি নামিওনা চোখে শোক,
চোখ বলে তারে করেছি যে ভুল পাবনার রাজভোগ।

মতামত জানান