অহিংস ধর্ম হিসেবে বেশ পরিচিত বৌদ্ধ ধর্ম। এইধর্মের উৎপত্তি যদিও আমাদের দক্ষিন এশিয়াতেই তারপরও আমরা বৌদ্ধ ধর্ম সম্পর্কে বেশি কিছু একটা জানিনা। রহস্যময়তা, গোপনিয়তা এবং কঠোর তপস্যার এই ধর্ম সম্পর্ক চলুন আজকে কিছু অদ্ভুত বিষয় জেনে নেই।

এশিয়ায় বৌদ্ধ ধর্মের উৎপত্তি হলেও এশিয়ার বাইরে প্রায় ৭ মিলিয়ন মানুষ বৌদ্ধ ধর্ম অবলম্বন করে।

জাপানের কিছু বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী একধরনের কঠোর তপস্যা করে থাকেন। যার ফলে তারা বিশেষ উপায়ে নিজেদের চর্বি কমিয়ে এনে মৃত্যুর সময়ে নিজেদের দেহকে মমিতে রূপান্তর করেন।

বৌদ্ধভিক্ষুদের যেকোন ধরনের প্রাণী হত্যা নিষিদ্ধ, এমনকি কিট পতঙ্গও।

সবচেয়ে বেশি বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের বাস চায়না তে। সেখানে প্রায় ২৪৪ মিলিয়ন বৌদ্ধ বসবাস করে যা চায়নার মূল জনসংখ্যার প্রায় ১৮.২%।

কৈশোরে স্টিভ জবস একবার ভারতে এসেছিলেন। এখানে এসে তিনি বৌদ্ধ ধর্ম সম্পর্কে জানতে পারেন। ফেরার সময় তিনি বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহণ করেন।

মায়ানমারের থানবৌদ্ধ প্যাগোডাতে  গৌতম বুদ্ধের প্রায় ৫৮২,৩৫৭ টি মূর্তি রয়েছে।

পৃথিবীর সর্বোচ্চ উঁচু মূর্তিগুলোর মধ্যেই তিনটিই হচ্ছে গৌতম বুদ্ধের।

বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের আলাদা ক্যালেন্ডারও আছে। থাইল্যান্ড, মায়ানমার, শ্রীলংকা, কম্বোডিয়া এবং লাওতে এই ক্যালেন্ডার মোতাবেক টানা তিনদিন নববর্ষের উৎসবও পালন করা হয়।

অন্যান্য ধর্মের মতো বৌদ্ধ ধর্মেও আত্মহত্যাকে পাপ হিসেবে গণ্য করা হয়। কারণ ধরা হয় যে, যে আত্মহত্যা করেছে সে আসলে ভবিষ্যতে পুণ্য করার সুযোগকে নিজ ইচ্ছায় পরিত্যাগ করেছে।

বৌদ্ধ ধর্মে মানুষ এবং প্রকৃতিকে একে অপরের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে ধরা হয়।

মতামত জানান